পার্লারে নারীর হাতে পুরুষদের ‘ম্যাসাজ’ নয়, করা যাবে না উল্টোটাও


অনেক পার্লারেই পুরুষের শরীর ম্যাসাজ করেন নারীরা। কোনো কোনো জায়গায় উল্টোটাও হয়। অর্থাৎ নারীরাও পুরুষ পার্লারকর্মীর শরণাপন্ন হন। তবে এবার এসব বন্ধে স্পা-পার্লার-স্যাঁলোর জন্য একগুচ্ছ নির্দেশিকা জারি করেছে ভারতের আসামের গুয়াহাটি পৌরসভা। সোমবার ভারতীয় গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে এ তথ্য জানা গেছে।

ওই নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, পার্লারে আর নারীদের দিয়ে ‘ম্যাসাজ’ করাতে পারবেন না পুরুষরা। নারীরাও পারবেন না পুরুষদের দিয়ে ‘ম্যাসাজ’ করাতে। শুধু তাই নয়, ওই সব স্পা-পার্লার-স্যালোঁর দরজাও স্বচ্ছ হতে হবে। অর্থাৎ, ভিতরে কী চলছে, তা যেন বাইরে থেকে পরিষ্কার দেখা যায়।

গত ১৩ নভেম্বর এই নির্দেশিকা জারি করেছে পৌরসভা। তাতে বলা হয়, নাগরিক সমাজের পছন্দ ও অপছন্দের বিষয়টি মাথায় রেখেই স্পা-পার্লার-স্যাঁলোর জন্য এই নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে।

নির্দেশনায় বলা হয়েছে—
• স্পা-পার্লার-স্যাঁলোর ভেতর মাসাজের জন্য আলাদা কোনো ঘর রাখা যাবে না।
• মূল দরজা স্বচ্ছ হতে হবে।
• স্পা বা সমলিঙ্গের পার্লারে প্রশিক্ষিত থেরাপিস্ট নিয়োগ করতে হবে।
• বিপরীত লিঙ্গের কেউ কারো মাসাজ করতে পারবেন না।
• স্টিম বাথের ব্যবস্থা রাখা যেতে পারে। কিন্তু বিপরীত লিঙ্গের কেউ গ্রাহককে পরিষেবা দিতে পারবেন না।
• স্পা বা পার্লারে যারা আসছেন, তাদের নাম ও ফোন নম্বর নিয়ম মেনে নথিভুক্ত করতে হবে।
 



Source link

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *